For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

Coronavirus : স্যানিটাইজার ব্যবহারের সময় এই ভুলগুলি একেবারেই করবেন না, মারাত্মক বিপদ হতে পারে

|

করোনা অতিমারিতে হ্যান্ড স্যানিটাইজার আমাদের জীবনের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে উঠেছে। এই মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ রোধ করতে, আজ হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সর্বদা সব পরিস্থিতিতে সাবান জল দিয়ে, হাত ধোওয়া সম্ভব হয়ে ওঠে না, বিশেষ করে বাড়ির বাইরে বেরোলে। সেক্ষেত্রে হ্যান্ড স্যানিটাইজার একধরনের রক্ষাকবচ হিসেবে কাজ করে।

তবে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সঠিক ব্যবহার ও বিধিনিষেধ সম্পর্কে, আমরা এখনও সেভাবে অবগত নই। আসুন জেনে নেওয়া যাক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারের ক্ষেত্রে কী করণীয় ও কি করা একেবারেই উচিত নয়।

হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারের ক্ষেত্রে কী করণীয়

১) পাবলিক স্পেসে যেসব স্থানে সবচেয়ে বেশি স্পর্শ করা হয়, যেমন - দরজার হাতল, টয়লেটের ফ্ল্যাশ, টেবিল টপ, ইত্যাদি। এই সব জায়গা আপনি স্পর্শ করলে অবশ্যই হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করুন।

২) হ্যান্ড স্যানিটাইজার অবশ্যই যেন অ্যালকোহল ভিত্তিক হয়। যার মধ্যে ৬০ থেকে ৯৫ শতাংশ অ্যালকোহল থাকবে। কম অ্যালকোহলযুক্ত বা অ্যালকোহল ছাড়া স্যানিটাইজার জীবাণুর বিরুদ্ধে আপনাকে রক্ষা করতে কার্যকর নয়।

৩) হাত এবং হাতের প্রতিটি আঙুল ভালভাবে স্যানিটাইজ করুন। স্যানিটাইজার নিয়ে, দুটি হাতের সব জায়গায় ২০ থেকে ৩০ সেকেন্ড পর্যন্ত ঘষুন, যতক্ষণ না পর্যন্ত হাত শুকনো হচ্ছে।

৪) অ্যালোভেরা জেলের সাথে ৮০ শতাংশ ইথানল বা ৭৫ শতাংশ আইসোপ্রোপানল যোগ করে, নিজেই ঘরোয়া ভাবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করতে পারেন। এক্ষেত্রে অ্যালকোহল এবং অ্যালোভেরা জেলের অনুপাত ২:১ হতে হবে। স্যানিটাইজারে মোট অ্যালকোহলের পরিমাণ কমপক্ষে ৬০ শতাংশ হয়, সে ব্যাপারে খেয়াল রাখুন।

৫) মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে, এমন হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করবেন না। মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়া হ্যান্ড স্যানিটাইজারে অ্যালকোহলের পরিমাণ হ্রাস পায় এবং কার্যক্ষমতাও কমে যায়।

হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারের ক্ষেত্রে কী করবেন না

১) আপনার হাত যদি ময়লা অথবা চিটচিটে থাকে, তবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করবেন না। বরং উষ্ণ গরম জল ও সাবান দিয়ে হাত ভাল করে ধুয়ে নিন।

২) হাতে স্যানিটাইজার নিয়ে, কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড পুরো হাত ভাল করে ঘষুন। হাতে স্যানিটাইজার নেওয়া মাত্রই মুছে বা ধুয়ে ফেলবেন না, তাহলে স্যানিটাইজার জীবাণুনাশে কার্যকর হবে না।

৩) যদি আপনি কোনও রাসায়নিক অথবা বিষাক্ত কীটনাশক স্পর্শ করেন, তবে এক্ষেত্রে হাত পরিষ্কার করতে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করবেন না। বরং এক্ষেত্রে, সাবান এবং হালকা গরম জল দিয়ে হাত ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে।

৪) হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারের পরিবর্তে, বাচ্চাদের সাবান ও জল দিয়ে ভাল করে হাত ধুতে উৎসাহিত করুন। কারণ বাচ্চাদের ক্ষেত্রে, স্যানিটাইজার ভুলবশত খেয়ে ফেলার সম্ভাবনা থাকে। যা অল্প পরিমাণে পেটে গেলেও, মারাত্মক বিষক্রিয়া হতে পারে।

৫) হ্যান্ড স্যানিটাইজার অতিরিক্ত পরিমাণে ব্যবহার করবেন না। কারণ অতিরিক্ত হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারের ফলে, ত্বক শুষ্ক এবং রুক্ষ হয়ে উঠতে পারে। এমনকি ত্বকের স্বাস্থ্যকর অণুজীব ধ্বংস হতে পারে, যার ফলে সংক্রমণের ঝুঁকি আরও বেড়ে যেতে পারে।

৬) হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করার পর, খাবার খাওয়ার আগে অথবা রান্নার আগে, অবশ্যই হাত ভাল করে সাবান দিয়ে ধুয়ে নিন। কিছু কিছু হ্যান্ড স্যানিটাইজারে 1-প্রোপানল উপাদানটি থাকে, যা কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রের উপর বাজে প্রভাব ফেলতে পারে। 1-প্রোপানলের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তির ক্ষেত্রে বিভ্রান্তি, চেতনা হ্রাস, হার্ট রেট কমে যাওয়া এবং শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যার মতো বিভিন্ন উপসর্গ দেখা দিতে পারে।

৭) যেকোনও খাবার, শাকসবজি এবং ফল পরিষ্কার করার সময়, হ্যান্ড স্যানিটাইজার একেবারেই ব্যবহার করবেন না।

English summary

Do's and Don'ts of using hand sanitizers against COVID-19 infections

Here are the important dos and don’ts of using hand sanitisers to keep in mind to ensure maximum protection. Read on.
X