For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

Omicron Symptoms : জ্বর, সর্দি-কাশিতে ভুগছেন? ওমিক্রনে আক্রান্ত নন তো?

|

দিনের পর দিন ওমিক্রনে আক্রান্তের সংখ্যা দ্রুত হারে বাড়ছে। ইতিমধ্যেই ভারতে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা দুই লাখের গণ্ডি ছাড়িয়ে গিয়েছে। তাই বিশেষজ্ঞ ও চিকিৎসকরা এই নতুন ভ্যারিয়েন্টকে হালকাভাবে না নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন। করোনার এই পর্যায়ে বেশিরভাগ রোগীর মধ্যেই ঠান্ডা লাগার মতো উপসর্গ দেখা দিচ্ছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, ডেল্টার তুলনায় ওমিক্রনে আক্রান্তদের হাসপাতালে ভর্তি ও মৃত্যুর হার অনেক কম হলেও, ডেল্টার চেয়ে এই ভ্যারিয়েন্ট ৪ গুণ বেশি সংক্রমণযোগ্য, যা উদ্বেগের মূল বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া, বেশিরভাগ ওমিক্রনের উপসর্গগুলি সাধারণ ঠান্ডা লাগার সাথে মিল থাকায়, বেশিরভাগ মানুষই বুঝেই উঠতে পারছেন না কোনটা সাধারণ ঠান্ডা লাগার লক্ষণ আর কোনটা করোনার উপসর্গ।

ওমিক্রনের উপসর্গ

ওমিক্রনের উপসর্গ

বিশেষজ্ঞদের মতে, ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের সংক্রামক ক্ষমতা করোনার বাকি ভ্যারিয়েন্টের থেকে অনেক বেশি। তবে প্রাথমিক গবেষণায় দেখা গেছে যে, এই নতুন ভ্যারিয়েন্টটি তুলনামূলক হালকা। হালকা জ্বর, গলা ব্যথা বা গলা ভেঙে যাওয়া, শরীরে প্রচণ্ড ব্যথা, রাতে ঘাম হওয়া, বমি এবং খিদে কমে যাওয়ার মতো লক্ষণগুলিই নির্দেশ করে যে শরীরে ওমিক্রনের উপস্থিতি আছে। এছাড়াও কাশি, অত্যধিক ক্লান্তি, নাক বন্ধ এবং নাক দিয়ে জল পড়াও ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের সাধারণ উপসর্গ বলে বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

সাম্প্রতিক রিপোর্ট অনুসারে, ওমিক্রনের দু'টি প্রধান লক্ষণ হল সর্দি এবং মাথাব্যথা।ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের এপিডেমিওলজি এবং হেলথ ইনফরমেটিক্সের অধ্যাপক Irene Peterson জানিয়েছেন, নাক দিয়ে জল পড়া এবং মাথাব্যথা অন্য অনেক সংক্রমণের লক্ষণ হতে পারে, তবে এগুলো কোভিড বা ওমিক্রনের লক্ষণও হতে পারে।ইতিমধ্যেই ওমিক্রনের অনেকগুলি উপসর্গ সামনে এসেছে, যার মধ্যে সর্দি এবং মাথাব্যথা সবচেয়ে সাধারণ।

অন্যান্য লক্ষণ

অন্যান্য লক্ষণ

গবেষণায় ওমিক্রনের অন্যান্য পাঁচটি উপসর্গ, যেমন - নাক দিয়ে জল পড়া, মাথাব্যথা, ক্লান্তি, হাঁচি এবং গলা ব্যথাও হাইলাইট করা হয়েছে।UK-এর ZOE COVID symptoms study app অনুসারে, রাতে ঘাম হওয়া, ক্ষুধা হ্রাস এবং বমি হওয়া, রোগীদের মধ্যে দেখা দেওয়া বেশ কিছু অস্বাভাবিক লক্ষণ।

আমেরিকান সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন সতর্ক করেছে যে, ওমিক্রনে আক্রান্ত হলে ত্বক, ঠোঁট এবং নখ ফ্যাকাশে, ধূসর বা নীল রঙের হয়ে যাচ্ছে কিনা সে দিকেও মানুষের নজর রাখা উচিত।

বিশেষজ্ঞদের মতে, ওমিক্রনে আক্রান্ত অনেকের মধ্যেই জ্বর, শরীরে ব্যথা ও ঠান্ডা লাগার পাশাপাশি লুজ মোশন-এর মতো সমস্যাও দেখা যাচ্ছে।

যেসব পদক্ষেপ নেওয়া উচিত

যেসব পদক্ষেপ নেওয়া উচিত

উপরে উল্লিখিত ওমিক্রনের লক্ষণগুলির মধ্যে বেশিরভাগ উপসর্গ যদি কোনও ব্যক্তির মধ্যে দেখা দেয়, তাহলে এটিকে সাধারণ ঠান্ডা লাগা বা ফ্লু বলে উপেক্ষা না করাই ভালো। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব কোভিড টেস্ট করান এবং ফলাফল বের না হওয়া আইসোলেশনে থাকুন। যদি রিপোর্ট পজিটিভ আসে, তাহলে আইসোলেশন চালিয়ে যান।

সর্বদা মাস্ক পরুন। আপনার ব্যবহৃত সমস্ত জিনিস, জামাকাপড় ও থালা-বাসন অন্যদের সঙ্গে শেয়ার করবেন না। ঘন ঘন হাত সাবান-জল দিয়ে ধোবেন বা স্যানিটাইজ করুন এবং আপনার চারপাশ পরিষ্কার রাখুন।

English summary

Coronavirus : All you need to know about Omicron symptoms in bengali

Coronavirus : All you need to know about Omicron symptoms.
X
Desktop Bottom Promotion