শনি মহাদশা থেকে পরিত্রাণ পেতে প্রতিকার

By: Tulika Ghoshal
Subscribe to Boldsky

বৈদিক জ্যোতিষ অনুযায়ী শনি, সবচেয়ে অগ্নিময় গ্রহ| শনি সৌরজগতের ধীরতম চলন্ত গ্রহ| এই কারণে, এটি একটি ঠান্ডা, অনুর্বর, শুষ্ক গ্রহ এবং তার প্রভাব অধিক তীব্রতার সঙ্গে এবং অন্য কোন গ্রহের চেয়ে বেশি সময়সীমার জন্য অনুভূত হয়|

কথিত আছে যে, শুক্রের অধীনে যে সকল মানুষ জন্মায় তারা শনির অনুকূলে থাকে| অপরপক্ষে, যারা বুধের অধীনে জন্মায় তাদের পক্ষে শনি মন্দ| জ্যোতিষশাস্ত্রে শনি একটি সাপ, যার মাথাকে রাহু এবং লেজকে কেতু বলা হয়| কেতু কে অগ্রাধিকার দিলে কোন ব্যক্তির অত্যন্ত উপকার হয়|

অতএব, শনির অবস্থান কোন ব্যক্তির সাফল্য ও ব্যর্থতা নির্ধারণ করে থাকে| শনি মহাদশা উনিশ বছরের কঠোর পরিশ্রম ও অধ্যাবসায়ের হয়ে থাকে| শনি, কোন ব্যক্তির কঠোর শৃঙ্খলা ও শ্রমের উপর বিলম্ব এবং অসুবিধা ও অতিরিক্ত দায়িত্ব তৈরি করে|

সংক্ষেপে বলতে গেলে, এই সময়টি আগামী দিনের জন্য, একজন ব্যক্তিকে সক্ষম, শক্তিশালী ও কার্যকরী পরিণত করার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে| এই সময়টি ব্যক্তির জন্য চাপ ও দুর্ভোগ বয়ে আনতে পারে| শনি যদি দুর্বল ভাবে স্থাপন করা হয় তাহলে, স্বাস্থ্য সমস্যা যেমন দীর্ঘস্থায়ী এবং যন্ত্রণাদায়ক রোগ, ক্যান্সার, চর্মরোগ, পক্ষাঘাত, বাত, গেঁটেবাত, বদহজম, বাতুলতা, পুরুষত্বহীনতা, হাঁপানি, প্রস্রাব এবং অন্ত্রের বিঘ্ন হতে পারে|

আত্মীয়স্বজন, গার্হস্থ্য সঙ্কট ও শ্রমিকদের সঙ্গে মতানৈক্য হতে পারে| সম্পদ হানি, মানসিক অস্থিরতা, চক্ষু ও কিডনির সাথে সম্পর্কিত রোগের প্রভাব দেখা যেতে পারে| পত্নী ভুগতে পারেন এবং পরিবারের প্রবীণদের ব্যথার কারণ হতে পারে|

শনি মহাদশার এই সব খারাপ প্রভাব কাটিয়ে ওঠার জন্য কয়েকটি কার্যকর প্রতিকার আপনি চেষ্টা করে দেখতে পারেন| এই প্রতিকার সম্পূর্ণরূপে মহাদশা কাটাতে সাহায্য নাও করতে পারে| কিন্তু এটা শনি মহাদশার যথেষ্ট প্রভাব কমিয়ে আনব| এক নজর দেখে নিন|

রুদ্রাভিষেক

রুদ্রাভিষেক

সোমবার ও শনিবার শিবলিঙ্গে জল ঢালা শনি মহাদশার জন্য একটি কার্যকর প্রতিকার বলা হয়|

হনুমানের উপাসনা

হনুমানের উপাসনা

মঙ্গলবার ও শনিবার হনুমানের উপাসনা মনকে শান্ত করতে সাহায্য করে| এছাড়াও হনুমান চালিসা প্রতিদিন পাঠ করলে শনির দশা শান্ত করতে সাহায্য করে|

কালো তিল

কালো তিল

শিবের কাছে প্রার্থনা করলে শনি দেবতা সন্তুষ্ট হন| প্রতিদিন বা বিশেষভাবে শনিবারে কাঁচা দুধের সাথে কালো তিল শিবলিঙ্গের ওপর ঢাললে শনির বিরূপ প্রক্রিয়া শান্ত করতে সাহায্য করে|

মাষকলাইয়ের ডাল দান

মাষকলাইয়ের ডাল দান

দরিদ্র মানুষকে কালো মাষকলাইয়ের ডাল দান করুন এবং প্রবাহিত নদীতে কিছু ভাসিয়ে দিন|

সরিষা তেল

সরিষা তেল

একটি বাটিতে সরিষার তেলে আপনার ছায়া দেখুন এবং শনিবারে তেলটি দান করে শনি দেবতার অনুগ্রহ পান|

খিচুড়ি

খিচুড়ি

শনি দেবতার অনুগ্রহ পেতে শনিবারে, চাল এবং কালো মাষকলাই ডালের খিচুড়ি খান এবং ওই দিন আমিষ খাবার এড়িয়ে চলুন|

উপবাস

উপবাস

যেসব লোকেরা সাধে সতী, শনি ধাইয়া, মহাদশা বা অন্তর্দশার প্রভাবে পড়েন তাদের শনিবারে উপবাস করা প্রয়োজন| শনিবার উপবাস পালনে মানুষের বাত, পৃষ্ঠবেদনা, পেশির সমস্যা দূর হয়| এছাড়াও এই উপবাস একজন ব্যক্তিকে আশাবাদী করে তোলে এবং মানসিক চাপ থেকে রেহাই দেয়|

তেল

তেল

প্রতি শনিবার, রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে শরীর ও নখের উপর তেল প্রয়োগ করুন| মাদক বা কোনো ধরনের আসক্তির ব্যবহার এড়িয়ে চলুন|

কালো রং পরুন

কালো রং পরুন

কালো শনি দেবের পছন্দের রং| সুতরাং, শনিবার কালো পরুন যদি আপনি শনি গ্রহর দ্বারা বিচলিত থাকেন এবং তাঁর অনুগ্রহ চান|

শনি মন্ত্র

শনি মন্ত্র

"নীলাঞ্জন সমভাষাম রবিপুথোরাম যমরাজাম ছায়া মার্থন্দ সম্ভূতম থম নমামি সানাইশ্যারাম"| যত বার সম্ভব শনিবারে এই মন্ত্র উচ্চারণ করুন| কমপক্ষে একশো আট বার পাঠ করার চেষ্টা করুন|

English summary
Shani or Saturn is the most fiery planet, according to Vedic astrology. Saturn is the slowest moving planet in the solar system. Due to this, it is a cold, barren, dry, secretive planet and its effects are felt with greater intensity and for longer periods than any other planet.
Please Wait while comments are loading...