মালাবারি স্টাইলে তৈরি মাচের বিরিয়ানির রেসিপি

Written By:
Subscribe to Boldsky

পশ্চিমঘাট পর্বতমালা এবং আরব সাগরের কোলে বেড়ে ওঠা মালাবার উপত্যকার বিখ্যাত একটি রেসিপি আজ আপানাদের শেখাতে চলেছি। মাছ সহযোগে তৈরি এই পদটি বেজায় সুস্বাদু এবং মন কারা। আর বাঙালিদের আজন্ম যেহেতু মাছই প্রথম পছন্দ, তাই তাদের এই রান্নাটি যে বেজায় পছন্দ হবে, তা হলফ করে বলতে পারি। তাহলে আর অপেক্ষা কেন, ঝটপট শিখে নিয়ে এই উইকএন্ডেই বানিয়ে ফেলুন না খাস দক্ষিণ ভারতীয় স্টাইলের এই ফিশ বিরিয়ানি। দেখবেন ৮-৮০ সবারই বেশ মনে ধরবে এই পদটি।

মালাবার ফিশ বিরিয়ানি বানাতে সময় লাগবে- ৪৫ মিনিট

উপকরণ গোছাতে সময় লাগবে- ৩০ মিনিট

পরিবেশন করবেন- ১ প্লেট

উপকরণ:
১. পছন্দের যে কোনও মাছ- ৫০০ গ্রাম
২. আদা- ২৫ গ্রাম
৩. রসুন-২৫ গ্রাম
৪. কাঁচা লঙ্কা- পরিমাণ মতো
৫. পেঁয়াজ-২৫০ গ্রাম (ছোট ছোট করে কাটা)
৬. লঙ্কা গুঁড়ো- ১ চামচ
৭. ধনে গুঁড়ো- ১ চামচ
৮. হলুদ গুঁড়ো- হাফ চামচ
৯. টমাটো- ১ টা (ছোট ছোট করে কাটা)
১০. দই- হাফ কাপ
১১. মিন্ট পাতা- এক আঁটি (ভাল করে কাটা)
১২. ধনে পাতা- অল্প করে
১৩. কারি পাতা- অল্প করে
১৪. গরম মশলা- হাফ চামচ
১৫. লেবুর রস- ১ চামচ
১৬. নুন- স্বাদ অনুসারে

বিরিয়ানি বানাতে যে যে উপকরণগুলি লাগবে:
১. সরু চাল- ৫০০ গ্রাম
২. পেঁয়াজ- ১ টা (কাটা)
৩. এলাচ- ২ টে
৪. লবঙ্গ- ৪ টে
৫. দারচিনি- ১ ইঞ্চি
৬. লেবুর রস- হাফ চামচ
৭. গরম জল- ৩-৪ লিটার
৮. ঘি- ১ কাপ

গার্নিশিং-এর জন্য প্রয়োজন পরবে:
১. কাজু বাদাম-২৫ গ্রাম
২. কিশমিশ- ২৫ গ্রাম
৩. পেঁয়াজ- ১ টা (গোল গোল করে কাটা)

পশ্চিমঘাট পর্বতমালা এবং আরব সাগরের কোলে বেড়ে ওঠা মালাবার উপত্যকার বিখ্যাত একটি রেসিপি আজ আপানাদের শেখাতে চলেছি।

রান্নার পদ্ধতি:
১. মাছটা ভাল করে ধুয়ে নিয়ে মাঝারি মাপে কেটে নিন।
২. একটা বাটিতে পরিমাণ মতো লঙ্কা গুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো, লেবুর রস এবং স্বাদ অনুসারে নুন দিয়ে ভাল করে মেখে নিন।
৩. এবার এই মিশ্রনে মাছের পিসগুলি দিয়ে দিন। মাছের গায়ে এই মিশ্রনটি যাতে ভাল করে লেগে যায়, সেদিকে খেয়াল রাখবেন।
৪. কম করে ১৫ মিনিট এই মশলার মিশ্রনে মাছগুলি ম্যারিনেট করুন।
৫.এবার একটা প্যানে পরিমাণ মতো তেল নিয়ে গরম করুন। তেলটা গরম হয়ে গেলে তাতে একে একে মাছের পিসগুলি দিয়ে ভাজতে শুরু করে দিন। যখন দেখবেন মাছের গায়ের রং সোনালী খয়েরি রঙের হয়ে গেছে, তখন আঁচটা বন্ধ করে দিন।
৬. ভাজা মাছটা সরিয়ে রেখে এবার ঐ তেলে পেঁয়াজটা ভাজুন। তারপর তাতে আদা-রসুনের পেস্ট এবং কাঁচা লঙ্কা মিশিয়ে ভাল করে নারতে থাকুন।
৭. এবার এতে লঙ্কা গুঁড়ো, ধনে গুঁড়ো এবং অল্প করে নুন, টমাটো এবং দই মেশান। অল্প আঁচে সবকটি উপকরণ ভাল করে নারতে থাকুন। যাতে সবকটি উপাদান ভাল করে মিশে যাওয়ার সুযোগ পায়।
৮. এবার মশলার মধ্যে ভাজা মাছগুলি দিয়ে দিন। তারপর তাতে মিন্ট পাতা, কারি পাতা এবং পরিমাণ মতো গরম মশলা মেশান।
৯. অল্প আঁচে এবার মাছটা রান্না হতে দিন। মাঝে মাঝে একটু নারতে থাকুন। রান্না হয়ে গেলে আঁচটা বন্ধ করে দিন।
১০. এবার বিরিয়ানি তৈরির পালা। চালটা ভাল করে ধুয়ে নিন প্রথমে।
১১. একটা হাঁড়িতে পরিমাণ মতো ঘি দিয়ে গরম করুন। যখন দেখবেন ঘিটা গরম হয়ে গেছে, তখন তাতে অল্প করে পিঁয়াজ ভেজে নিন। ভাজা হয়ে গেলে পেঁয়াজটা সরিয়ে নিয়ে একই হাঁড়িতে পরিমাণ মতো কাজু এবং কিশমিশ দিয়ে সেগুলি একটু ঘিতে নারিয়ে নিন।
১২. এবার ঘিতে এলাচ, লবঙ্গ এবং দারচিনি দিন। তারপর তাতে পুনরায় পিঁয়াজ দিয়ে ভাল করে নারান।
১৩. এবার হাঁড়িতে চালটা মেশান। ৫ মিনিট পর গরম জল, লেবুর রস এবং স্বাদ অনুসারে নুন দিয়ে হাঁড়িটা চাপা দিয়ে দিন।
১৪. ভাতটা রান্না হতে দিন।
১৫. এবার আরেকটা বড় হাঁড়ি নিয়ে তাতে মাছের গ্রেভিটা দিয়ে দিন। উপরে একটু গরম মশলা দিয়ে দিন।
১৬. মাছের গ্রেভির উপর ভাতটা দিন। এইভাবে ধাপে ধাপে ভাত, মাছ, ভাজা পেঁয়াজ, গরম মশলা, কাজু এবং কিশমিশ দিয়ে দিন।
১৭.ভাত এবং মাছ মেশানো হয়ে গেলে হাঁড়িটা ভাল করে চাপা দিন। একপর হাঁড়িটা গরম আঁচে বসিয়ে আরও ১৫ মিনিট রান্না করুন।
১৮. সময় হয়ে গেলে আঁচটা বন্ধ করে গরম গরম মালাবারি ফিশ বিরিয়ানি পরিবেশন করুন।

English summary
Fish biriyani cooked in malabar style. In malabar, seerfish or pomfret is generally used for making biriyani. It can be made with seer or any fleshy fish. This is a malabar traditional style recipe.
Please Wait while comments are loading...