চটজলদি ফুচকা বানানোর রেসিপি

Posted By:
Subscribe to Boldsky

জন্ম বেনারসে। কিন্তু আজ সারা ভারতে এর জয়জয়কার। উত্তর থেকে দক্ষিণ, পূর্ব থেকে পশ্চিম, যেখানেই যান না কেন, ছোট ছোট শাল পাতা হাতে লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে অনেকে। কারও কাছে এটা গোলগাপ্পা, তো কেউ গাপ চাপ নামে চেনে। এবার নিশ্চয় বুঝেছেন কোন খাবারে কথা বলছি?

একদম ঠিক ধরেছেন! আমাদের সবার পছন্দের ফুচকার কথাই বলছি আমি। এটি এমনটি একটি খাবার যা, যে কোনও বয়সিরা, যে কোনও সময় খেতে রাজি হয়ে যাবেন। আর ছোটরা তো এটা খায় না, গেলে। ওরা তো কম্পিটিশন করে এক একবারে ১০০ টাও ফুচকাও খেয়ে নিতে পারে। তাই তো আজ চটজলদি ফুচকা বানানোর একটা দারুন রেপিসির সন্ধান দিতে চলেছি আপনাদের। ছুটির দিনে বিকাল বিকাল বানিয়ে ফেলুন ফুচকা। তারপর তেঁতুল জলে চুবিয়ে একবার বাচ্চাদের সামনে রাখলেই দেখবেন কেমন দিল খুশ হয়ে যায় ওদের।

ফুচকা বানাতে কমবেশি ২০ মিনিটের বেশি সময় লাগবে না। আর এটি তৈরি করতে যে খুব হাই ফাই কোনও উপকরণের প্রয়োজন পরবে, এমনও নয়। তাহলে অপেক্ষা কিসের! সময় নষ্ট না করে এক্ষুনি চোখ রাখুন বাকি প্রবন্ধে। আর শিখে নিন চটজলদি পানিপুরি বানানো।

চটজলদি ফুচকা বানানোর রেসিপি

পরিবেশন করবেন- যেমন ইচ্ছা

উপকরণ জোগার করতে সময় লাগবে- ২০ মিনিট

বানাতে সময় লাগবে- মাত্র ১৫ মিনিট

উপকরণ:
১. পুরি- ২৪-৩০ টা
২. তেঁতুল জল- ১টা বড় বাটি

পুরটা বানাতে প্রয়োজন পড়বে:
১. আলু- ২-৩ টে
২. পেঁয়াজ- ১ টা
৩. ধনে পাতা- ২ চামচ (ভাল করে কাটা)
৪.জিরা পাউডার- ১ চামচ
৫. চাট মশলা- ১ চামচ
৬. লঙ্কা পাউডার- একটা চামচের এক চতুর্থাংশ
৭. বিট লবন- পরিমাণ মতন

জলটা বানাতে লাগবে:
১. পুদিনা পাতা- হাফ কাপ
২. ধনে পাতা- এক কাপের তিন চতুর্থাংশ
৩. আদা- ১ ইঞ্চি (ছোট ছোট করে কাটা)
৪.কাঁচা লঙ্কা- ২-৩ টে
৫. তেঁতুল- ১ চামচ
৬. জিরা পাউডার- ১ চামচ
৭. চাট মশলা- ১ চামচ
৮. জল- ২-৩ কাপ
৯. বিট নুন- পরিমাণ মতো

চটজলদি ফুচকা বানানোর রেসিপি

পুর বানানোর পদ্ধতি:
১. আলুগুলো ভাল করে সেদ্ধ করুন।
২. সেদ্ধ হয়ে গেলে আলুগুলো ভাল করে চোটকে নিন।
৩. পেঁয়াজটা কেটে নিন।
৪. একটা ছোট বাটিতে আলু সেদ্ধ, পেঁয়াজ, ধনে পাতা, জিরা পাউডার, চাট মশলা এবং বিট নুন নুন দিয়ে ভাল করে মেশান উপকরণগুলি।

ফুচকার জলটা বানানোর পদ্ধতি:
১. ব্লেন্ডারে প্রয়োজনীয় উপকরণগুলি দিয়ে দিন।
২. অল্প করে জল মিশিয়ে ভাল করে উপকরণগুলি পেস্ট করে একটা চাটনি বানিয়ে ফেলুন।
৩. সবে বানানো চাটনিতে ২-৩ কাপ জল মেশান। ভাল করে জলে গুলে দিন চাটনিটা। এবার একবার টেস্ট করে দেখুন কেমন খেতে লাগছে জলটা। কিছু কম মনে হলে সেটা পুনরায় মেশান জলের সঙ্গে।

কীভাবে ফুচকা আর জলকে একসঙ্গে পরিবেশন করবেন?
১. একটা চামচ বা বুড়ো আঙুল দিয়ে ফুচকার মাথাটা ফাটিয়ে নিন।
২. অল্প করে পুর নিয়ে ফুচকার ভেতরে ঢুকিয়ে দিন।
৩. জলটা ভাল করে একবার নারিয়ে নিন। তারপর পুর দেওয়া ফুচকাটা জলে চোবান।
৪. এবার পরিবেশন করুন ফুচকাটা।

কেমন বানালেন চটপটি এই স্ন্য়াক্সটা? জানাবেন কিন্তু আমাকে!

Read more about: রেসিপি
English summary
easy pani puri recipe
Please Wait while comments are loading...