পোস্ত এবং চিংড়ি মাছ দিয়ে তৈরি করে ফেলুন সুস্বাদু, জিভে জল আনা পটলের দোরমা

Posted By:
Subscribe to Boldsky

আগামী কয়েক মাসে তেমন বড় কোনও উৎসব নেই বলে স্পেশাল পদ বানানোতেও দারি পরে যাবে, এমনটা তো হতে পারে না। তাই আজ এই প্রবন্ধের মাধ্যমে আপনাদের এমনটি একটি পদ বানানো শেখাবো, যা সাধারণ দিনেও আপনার অন্দর মহলে উৎসবের মেজাজ এনে দেবে। আর সব থেকে আনন্দের বিষয় কি জানেন? পটল এবং চিংড়ি মাছ সহযোগে এই পদটি বানাতে একেবারেই বেশি সময় লাগে না। তাই বলি, আর অপেক্ষা না চটজলদি শিখে নিন এই পদটি বানানো। দেখবেন যেদিনই আপনি এই রেসিপিটি পরিবেশন করবেন, সেদিনই সকাল-বিকাল ঝড় উঠবে আপনার খাওয়ার টেবিলে।

আগামী কয়েক মাসে তেমন বড় কোনও উৎসব নেই বলে স্পেশাল পদ বানানোতেও দারি পরে যাবে

চিংড়ি পটলের দোরমা বানাতে সময় লাগবে- ৩০ মিনিট

পরিবেশন করবেন- ৬ টা

উপকরণ গোছাতে সময় লাগবে- ১ ঘন্টার কাছাকাছি

যে যে উপকরণগুলি লাগবে:
১. চিংড়ি- ২৫০ গ্রাম
২. পোস্ত- ২ চামচ
৩. সরষে- ১ চামচ
৪. কাঁচা লঙ্কা- ৫ টা (ছোট ছোট করে কাটা)
৫. পটল- ৬টা
৬. নুন-- স্বাদ অনুসারে
৭. সরষের তেল- ২ চামচ
৮. পেঁয়াজ- ১টা (পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে)
৯.লঙ্কা গুঁড়ো- হাফ চামচ
১০. দই- ১ চামচ

বানানোর পদ্ধতি:
১. প্রথমে পটলের মাথাটা কেটে নিন।
২. এবার একটা চামচের সাহায্যে পটলের শরীরের অন্দরে থাকা বীজগুলি বার করে ফেলুন।
৩. বীজ বার করা হয়ে গেলে ভাল করে পটলগুলো ধুয়ে নিন।
৪. এবার একটা বাটিতে পরিমাণ মতো জল নিয়ে তাতে চিংড়া মাছগুলি ফেলে জলটা ফোটান। প্রসঙ্গত, এই জলে অল্প করে নুন মেশাতে ভুলবেন না।
৫. পোস্তো, কাঁচা লঙ্কা, নুন এবং সরষে এক সঙ্গে মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে ফেলুন।
৬. একটা কড়াই নিয়ে তাতে পরিমাণ মতো তেল নিয়ে গরম করে নিন। যখন দেখবেন তেলটা গরম হয়ে গেছে, তখন তাতে বয়েল করা চিংড়ি মাছগুলি দিয়ে দিন।
৭. এবার চিংড়ি মাছ আর তেলের মধ্যে পোস্তর পেস্টটা মিশিয়ে ভাল করে নারাতে থাকুন।
৮. চিংড়ি মাছটা রান্না হয়ে গেলে আঁচটা বন্ধ করে দিন।
৯. চিংড়ি মাছ দিয়ে তৈরি পুরটা ঠান্ডা হয়ে গেলে তা থেকে পরিমাণ মতো নিয়ে পটলের মধ্যে চেপে চেপে ঢুকিয়ে দিন।
১০. এবার ১ চামচ সরষের তেল গরম করুন। যখন তেলটা গরম হয়ে যাবে তখন তাতে পেঁয়াজের পেস্ট এবং লঙ্কার গুঁড়ো মিশিয়ে ২-৩ মিনিট নারান। সময় হয়ে গেলে এতে দই মেশান। সবকটি উপকরণ দেওয়া হয়ে গেলে ভাল করে মিশ্রনটি নারাতে থাকুন। তারপর তাতে পটলগুলি দিয়ে পুনরায় নারাতে থাকুন। এমনটা করলে মশলাগুলো ভাল করে পটলের সঙ্গে মিশে যেতে পারবে।
১১. পোস্ত এবং চিংড়ি মাছ দিয়ে তৈরি পটলের দোরমা তৈরি হয়ে গেছে। এবার পরিবেশনের পালা।

Story first published: Saturday, May 6, 2017, 17:40 [IST]
English summary
Handwriting is about the brain, not the hand. Nerve impulses travel down the arm, into the hand, directing the fingers to maneuver the pen. When the ink hits the paper, it actually reveals the complex inner workings inside the writer’s body mind and spirit. A deeply trained graphologist can spot imbalances in handwriting that reveal imbalances in the body mind and spirit.
Please Wait while comments are loading...