মুখের ছোপ ছোপ দাগ কমাতে ঘরোয়া চিকিৎসা

Subscribe to Boldsky

দাগহীন সুন্দর ত্বকে পেতে কে না চায়! কিন্তু সবাই পায় কি? নানা কারণে , তা রোগ হতে পরে বা অন্য় কিছু কারণে বেশিরভাগ মহিলার মুখই ক্ষতয় ভরা থাকে। আর পিগমেন্টটেশন বা মুখে ছোপ ছোপ দাগের সমস্য়ায় তো এত জন ভুগছেন যে গুনে শেষ করা যাবে না। তাই তো এই প্রবন্ধে এমন একটি ঘরোয়া চিকিৎসা সম্পর্কে আলোচনা করা হল যা দাগহীন মসৃন ত্বক রেতে আপনাকে সাহায্য করবে।

যে কোনও ধরনের ত্বকের অসুবিধায় ঘরোয়া চিকিৎসা খুব কাজে আসে। কারণ এই ধরনের চিরিৎসায় যে যে উপরকণগুলি ব্য়বহার করা হয় সেগুলিতে কেমিকেলের উপস্থিতি একবারে থাকে না বললেই চলে। ফলে এর থেকে ত্বকের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা থাকে না। সর্বোপরি, এই উপকরণগুলি জোগার করতেও খুব একটা কষ্ট করতে হয় না, একটু রান্নাঘরে উঁকি মারলেই খুঁজে পাওয়া যায়। ফলে খুব যে টাকা খরচ হয়, তাও নয়! তাহলে অপেক্ষা কিসের! মুখের ছোপ ছোপ দাগ থেকে মুক্তি পাওয়ার সময় এসে গেছে।

১. দুধ:

এতে রয়েছে ল্য়াকটিক অ্যাসিড, যা কমাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। মুখের যেখানে যেখানে ছোপ আছে সেখানে অল্প করে দুধ লাগিয়ে ১০-১৫ মিনিট রেখে দিন। তরপর তুলো দিয়ে ভালো করে মুখটা মুছে নিন। প্রতিদিন এমনটা করলে ভাল ফল পাবেন।

২. লেবু:

ত্বককে দাগমুক্ত করে উজ্জ্বল বানাতে লেবুর কোনও বিকল্প নেই। এই ফলটিতে রয়েছে প্রাকৃতিক ব্লিচিং প্রপাটিজ, যা স্কিন টোন ভাল করার পাশাপাশি ত্বকের যে কোনো রোগ সরাতে দারুন কাজে আসে। মুখে লেবুর রস লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিট রেখে দিন। তারপর ঠান্ডা জল দিয়ে ভালো করে মুখটা ধুয়ে ফেলুন। প্রসঙ্গত, মুখে লেবুর রস লাগালে একটু গন্ধ ছাড়তে পারে, তাতে অস্বস্তি বোধ করবেন না যেন!

৩. অ্যালো ভেরা:

ত্বক শুষ্ক হয়ে গেলে হাইপারপিগমেন্টটেশন হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়। আর একথা তো সবারই জানা যে ত্বককে আদ্র রাখতে অ্যালো ভেরা জেলের কোনও বিকল্প নেই। প্রতিদিন রাতে শুতে যাওয়ার আগে মুখে ভালো করে এই জেল লাগান। এমনটা করলে দেখবেন অল্প দিনেই ত্বক দাগমুক্ত হয়ে গেছে।

৪. বেসন:

ত্বক ভালো রাখতে সেই প্রাচীন কাল থেকে বেসনের ব্য়বহার হয়ে আসছে। পরিমাণ মতো বেসনের সঙ্গে দুধ মিশিয়ে মুখে লাগান। তারপর ধীরে ধীরে মিশ্রনাটা মুখে ঘোষতে থাকুন। যখন দেখবেন সারা মুখে এই বেসন-দুধ লাগানো হয়ে গেছে তখন মুখটা ধুয়ে ফেলুন। প্রসঙ্গত, এই মিশ্রনটি মুখের দাগ হ্রাস করার পাশাপাশি ত্বকের উপরিভাগে জমে থাকা মৃত কোষগুলিকে পরিষ্কার করে স্কিনকে উজ্জ্বল করে।

৫. লিচু:

এই ফলটিতে এক ধরনের অ্যাসিড থাকে, যা দাগ কমাতে সাহায্য় করে। কয়েকটি লিচু নিয়ে থেতো করে নিন। তারপর সেই পেস্টটা সারা মুখে লাগিয়ে আধ ঘন্টা রেখে মুখটা ধুয়ে ফেলুন। ভালো ফল পাবেন।

৬. পেঁপে:

এই ফলটিতে রয়েছে বেশ কিছু কার্যকরী এনজাইম, যা হাইপারপিগমেন্টটেশন কমাতে দারুন কাজে আসে। পরিমাণ মতো পেঁপে নিয়ে সেটিকে থেঁতো করে নিন। তারপর তা মুখে লাগান। প্রসঙ্গত, এই ফেস প্য়াকটি মুখের দাগ কমানোর পাশাপাশি মুখমন্ডলের অবাঞ্চিত চুল ঝড়িয়ে ফেলতেও সাহায্য় করে।

English summary
A clear, flawless face is something that most women wish for, but very few eventually achieve it. Wouldn't we all love to have an even, clear skin? These simple home remedies for hyperpigmentation will make sure that your skin is at its best under any circumstance.
Please Wait while comments are loading...