কোলেস্টরলের সমস্যায় ভুগছেন? ঘরোয়া উপায়ে মিলতে পারে মুক্তি!

Written By:
Subscribe to Boldsky

গত কয়েক বছরে সারা বিশ্বেই কোলেস্টেরলের সমস্যায় আক্রান্তের মানুষের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়ছে। তাই তো "হাই কোলেস্টরল" কথাটা এখন বেশ পরিচিত হয়ে উটেছে আমাদের সবার মধ্যে। চিন্তাটা কোথায় জানেন, কোলেস্টেরল একা কখনও শরীরে বাসা বাঁধে না। লেজুড় করে নিয়ে আসে আরও নানা রোগকে। আর সেগুলি সবই মারণ রোগ। যার মধ্যে অন্যতম হল হার্ট অ্যাটাক। তাই এখন থেকেই সাবধান হন। সময় থাকতে থাকতে কোলেস্টেরলকে বাগে নিয়ে আসুন। তাহলে আর কোনও চিন্তাই থাকবে না। আর এই কাজটি করবেন কীভাবে? একবার এই প্রবন্ধটি পড়ে ফেলুন। তাহলেই সব উত্তর পয়ে যাবেন।

গত কয়েক বছরে সারা বিশ্বেই কোলেস্টেরলের সমস্য়ায় আক্রান্তের মানুষের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়ছে।

ওষুধটি বানাতে প্রয়োজন পড়বে যে যে উপকরণ:
১. রান্না করা ওটস মিল- ১ কাপ
২. বাদাম- ৪টে

গত কয়েক বছরে সারা বিশ্বেই কোলেস্টেরলের সমস্য়ায় আক্রান্তের মানুষের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়ছে।

এই ঘরোয়া ওষুধটি খুব অল্প সময়েই বাজে কোলেস্টেরলের মাত্রাকে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে চলে আসে। ফলে মারাত্মক কিছু ঘটে যাওয়ার আশঙ্কা অনেকাংশেই হ্রাস পায়। তবে শুধু এই ওষুধটি খেলে চলবে না কিন্তু! সেই সঙ্গে প্রতিদিন শরীরচর্চা করতে হবে। সঙ্গে ডায়েটে রাখতে হবে পুষ্টিকর খাবার। চলবে না চর্বি জাতীয় খাবার খাওয়াও। এই নিয়মগুলি মেনে চললে ফল পাবেন একেবারে হাতে-নাতে।

ওটসে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার, যা রক্তনালীতে জমে থাকা কোলেস্টরলদের শরীর থেকে বের করে দেয়। ফলে রক্ত প্রবাহ বিগ্নিত হয়ে জোটিল কোনও রোগ হওয়ার আশঙ্কা কমে। অন্যদিকে, বাদামেও রয়েছে ফাইবার এবং ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড। এই দুটি উপাদানই রক্তে কোলেস্টরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

গত কয়েক বছরে সারা বিশ্বেই কোলেস্টেরলের সমস্য়ায় আক্রান্তের মানুষের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়ছে।

ওষুধটি বানানোর পদ্ধতি:
১. এক কাপ রান্না করা ওটস মিলে পরিমাণ মতো বাদাম মেশান।
২. মিশ্রনটি নারাতে থাকুন, যাতে দুটি উপাদান ভাল করে মিশে যেতে পারে।
৩. টানা এক মাস ব্রেকফাস্টের সময় এই ওষুধটি খেলে কোলেস্টরল নিয়ে আর কখনও চিন্তা করতে হবে না।



Story first published: Saturday, April 15, 2017, 14:05 [IST]
English summary
high blood cholesterol is said to be one of the main reasons for fatal heart attacks. So, it is important to ensure that you lead a healthy lifestyle to keep your cholesterol levels under control.
Please Wait while comments are loading...