ব্রেকফাস্টে এই খাবারটি খেলে ওজন কমবে চোখে পরার মতো

Subscribe to Boldsky

কথায় আছে, দিনের মধ্যে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ খাবার হল ব্রেকফাস্ট। এই সময় কী খাবার খাচ্ছি, তার উপর আমাদের শরীরের সার্বিক অবস্থা কেমন হবে, তা অনেকটাই নির্ভর করে। তাই তো প্রাতঃরাশে খাবার খেতে হবে খুব বুঝেশুনে। আর এই সময় খালি পেটে থাকা তো একেবারেই চলবে না।

এই প্রবন্ধে এমন একটি খাবার নিয়ে আলোচনা করা হল, যা ব্রেকফাস্টের সময় খেলে ডায়াবেটিস, ব্লাড প্রেসার এবং কোলেস্টেরলের মতো রোগের প্রকোপ কমে গিয়ে শরীর চাঙ্গা তো হবেই, সেই সঙ্গে ওজনও কমবে চোখে পরার মতো। এক কথায় বলা যেতে পারে এই খাবারটির গুণ বহুমুখি। প্রসঙ্গত, এই খাবারটি বানানো কিন্তু খব সহজ। এখন প্রশ্ন কী কী উপকরণের প্রয়োজন পরবে এই খাবারটি বানাতে, তাই তো? চলুন জেনে নেওয়া যাক সে সম্পর্কে।

উপকরণ:

১. ২ কাপ ওটস
২. এক মুঠো চিয়া বীজ
৩. ২ চামচ লেবুর রস
৪. ১ চামচ দারচিনি গুঁড়ো
৫. ১ গ্লাস দুধ

ধাপ ১:

একটা মাটির হাঁড়িতে পরিমাণ মতো উপকরণগুলি নিয়ে ৫ মিনিট ভাল করে উপকরণগুলি মিশিয়ে নিন। খেয়াল করবেন সবকটি উপকরণ যেন ভাল করে মিশে যায়।

ধাপ ২:

এবার হাঁড়িটা স্টোভের উপর রেখে হালকা আঁচে ১০ মিনিট ধরে সেদ্ধ করুন উপকরণগুলি।

ধাপ ৩:

সময় হয়ে গেলে আঁচটা বন্ধ করে দিন। যতক্ষণ না মিশ্রনটি ঠান্ডা হচ্ছে ততক্ষণ রেখে দিন। তারপর ৩ ড্রপ মধু মিশিয়ে মিশ্রনটি খেযে ফেলুন। প্রতিদিন সকালে এই খাবারটি খেলে ফল পাবেন একেবারে হাতে-নাতে!

তথ্য ১:

চিয়া বীজে প্রচুর মাত্রায় ওমেগা- থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড যেমন আছে, তেমনি ক্যালসিয়ামও আছে। এই দুটি উপাদান কোলেস্টেরল কমিয়ে শরীরকে সুস্থ করে তোলে। প্রসঙ্গত, এতে অ্যান্টি-অক্সিডেন্টও প্রচুর মাত্রায় রয়েছে। আর একথা তো সকলেরই জানা যে এই উপাদানটি নানা ভাবে শরীরের উপকারে লাগে।

তথ্য ২:

ওটমিলে রয়েছে ফাইবার, মিনারেল এবং প্রোটিন। এই সবকটি উপাদান হার্টের স্বাস্থ্য ভাল করে নানা ধরনের হার্টের রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমায়।

এবার বুঝলেন তো এই খাবারটি কতদিক থেকে শরীরকে সুস্থ করে তোলে। আজকাল যে হারে পরিবেশ দূষণ বাড়ছে, সেই সঙ্গে বাড়ছে অস্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রা অনুসরণ করা লোকের সংখ্যা। এমন পরিস্থিতি এই ধরনের খাবারের প্রয়োজনীতা বলে দেওয়ার নয়।

English summary
Are you bored of the regular breakfast items? Well, a healthy breakfast is a good way to start the day. Here is a breakfast item that can help you minimise blood sugar levels, cholesterol levels and also fat levels in your body.
Please Wait while comments are loading...