শত চেষ্টা করেও ওজন কমাতে পারছেন না? এই কারণগুলি দায়ি হতে পারে

Subscribe to Boldsky

পুষ্টিকর খাবার খাচ্ছেন, সেই সঙ্গে প্রতিদিন শরীরচর্চাও করছেন। তবু ওজন কমার নামই নিচ্ছে না। ভাবছেন কেন এমনটা হচ্ছে। তাই তো? অনেক কারণে এমনটা হতে পারে। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই জীবনযাত্রাগত কিছু ভুল সিদ্ধান্ত অথবা কোনও শারীরিক সমস্যার কারণেই এমনটা হয়ে থাকে। প্রথমে জীবনযাত্রার প্রসঙ্গে আসা যাক। শুধু মাত্র শরীরচর্চা করলে কিন্তু ওজন কমে না। সেই সঙ্গে ডায়েটের দিকে যেমন নজর দিতে হয়, তেমনি দৈনন্দিন জীবনকেও অনেক বেশি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসতে হয়। তাই তো এই প্রবন্ধে আলোচিত বিষয়গুলির দিকে নজর দিন। খেয়াল রাখুন এই ভুল কাজগুলি আপনি করছেন না তো!

প্রসঙ্গত, কিছু রোগের কারণেও অনেক সময় ওজন কমতে চায় না। এদিকটাও খেয়াল রাখাটা দরকার। না হলে আপনি শরীরচর্চা করে গেলেও ওজন কমতে চাইবে না। তাহলে অপেক্ষা কিসের চলুন জেনে নেওয়া যাক ওজন না কমার নানা কারণ সম্পর্কে।

১. ডায়েট মানছেন তো ঠিক করে?

যেমনটা বারংবার বলা হয়েছে যে শুধু শরীরচর্চা করলে চলবে না। কী খাচ্ছেন এবং কখন খাচ্ছেন সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। প্রসঙ্গত ওজন কমানোর লক্ষ স্থির করার পর কতগুলি খাবারের দিকে ফিরেও তাকানো চলবে না। যেমন- ভাজাভুজি, জাঙ্ক ফুড, রেড মিট, যে কোনও চর্বি জাতীয় খাবার প্রভৃতি।

২. একই ভাবে শরীরচর্চা করলে চলবে না:

নিদিষ্ট সময় অন্তর অন্তর শরীরচর্চা করার সময় বাড়াতে হবে। আপনি যদি ভেবে থাকেন প্রতিদিন মাত্র ২০ মিনিট এক্সারসাইজস করলেই ফল মিলবে, তাহলে ভুল ভাবছেন। তাই আজ যদি ৩০ মিনিট শরীরচর্চা করেন, তাহলে কাল ৪০ মিনিট করার চেষ্টা করুন। পরের দিন সময় আরও বাড়ান।

৩. মিষ্টি জাতীয় খাবার বেশি খাওয়া চলবে না:

মিষ্টি যত বেশি খাবেন শরীরে ক্যালরির মাত্রা বৃদ্ধি পাবে। আর ক্যালরি ওজন বাড়ায়। তাই যতটা পারবেন মিষ্টি জাতীয় খাবার কম খাওয়ার চেষ্টা করবেন। প্রসঙ্গত, মিষ্টি শুধু ওজন বাড়ায় না, সেই সঙ্গে আমাদের সহজে ক্লান্তও করে দেয়। ফলে কর্মক্ষমতা হ্রাস পায়।

৪. পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুম জরুরি:

রাতে কম করে ৭-৮ ঘন্টা ঘুমানো জরুরি। এর থেকে কম সময় শরীরকে আরাম দেবেন তো ওজন বাড়তে শুরু করবে।

৫. আপনার থাইরয়েডের সমস্যা নেই তো?

এই রোগের কারণেও অনেক সময় ওজন বাড়ে। তাই যদি দেখেন সব নিয়ম মেনে চলার পরও ওজন কমছে না তাহলে একজন চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে প্রয়োজনীয় টেস্ট করে দেখে নেবেন হাইপারথাইরয়েডিজম অথবা হাইপোথাইরয়েডিজমে আক্রান্ত হয়েছেন কিনা।

৬. অতিরিক্ত স্ট্রেসের কারণেও কিন্তু ওজন বাড়ে:

যখনই আমরা মাত্রাতিরিক্ত মানসিক চাপের মধ্যে দিয়ে যাই, তখনই আমাদের শরীরে কর্টিসল নামক স্ট্রেস হরমোনের ক্ষরণ বেড়ে যায়। আর এই হরমোনের ক্ষরণ যত বাড়বে, তত বৃদ্ধি পেতে শুরু করবে শরীরের ওজন। তাই ওজন কমাতে স্ট্রেস থেকে দূরে থাকাটা একান্ত প্রয়োজন।

Read more about: শরীরচর্চা
English summary
If you're eating good foods and also working out on a regular basis, yet not losing weight, there are some things that you might be doing wrong.
Please Wait while comments are loading...