ভুলেও টাইট আন্ডারওয়্যার পরবেন না! না হলে কিন্তু...

Posted By:
Subscribe to Boldsky

দৈনন্দিন জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে ওঠে আন্ডারওয়্যার সম্পর্কে অনেক কিছুই জানি না আমরা। যে কারণে নিজেদের অজান্তেই জড়িয়ে পরি নানা রোগে। তাই তো আজ বোল্ডস্কাই বাংলায় এমন একটি বিষয়ের উপর আলোকোপাত করতে চলেছি, যে বিষয়টা নিয়ে অনেকেই সেভাবে কোনও দিন ভাবেন নি হয়তো?

আচ্ছা আন্ডারওয়্যার কেনার সময় কখনও ট্রায়াল দিয়ে দেখেন যে সেটা ভাল মতো ফিট হয়েছে কিনা? পরিসংখ্যান বলছে প্রায় ৬০ শতাংশ মানুষই এমনটা করেন না। ভাবেন, " আন্ডারওয়্যার কেনার আগে পরে দেখার কী আছে। থাকবে তো প্যান্টের নিচে। তাই একটু এদিক-ওদিক হলে ক্ষতি কী!" অনেকই ক্ষতি আছে। একাধিক গবেষণার পর একথা প্রমাণিত হয়েছে যে ঠিক সাইজের আন্ডারওয়্যার না পরে যদি দিনের পর দিন কেউ টাইট আন্ডার গার্মেন্টস পরে থাকেন তাহলে হতে পারা নানা জটিল রোগ। যেমন...

১. স্পার্ম কাউন্ট কমে যায়:

১. স্পার্ম কাউন্ট কমে যায়:

বেশিক্ষণ চাপা বা টাইট আন্ডারওয়্যার পরে থাকলে গোপন অঙ্গে মারাত্মক চাপ পরে। ফলে ধীরে ধীরে স্পার্ম কাউন্ট কমে যেতে শুরু করে। আর এমনটা হলে বাচ্চা নেওয়ার সময় একাধিক সমস্যা দেখা দেয়। সেই সঙ্গে বন্ধ্যাত্বের আশঙ্কাও বৃদ্ধি পায়। আসলে চাপা আন্ডার গার্মেন্টস পরলে কোমরের নিচের অংশ গরম হয়ে যায়, যার সরাসরি প্রভাব পরে স্পার্মের উপর।

২. শরীরে রক্ত প্রবাহ ঠিক মতো হতে পারে না:

২. শরীরে রক্ত প্রবাহ ঠিক মতো হতে পারে না:

বহুক্ষণ টাইট জাঙ্গিয়া পরে থাকলে কোমরের নিচের অংশে রক্তসরবারহ ঠিক মতো হতে পারে না। ফলে ধীরে ধীরে এই অংশের নার্ভের কর্মক্ষমতা কমতে শুরু করে। আর যদি ঠুক সময়ে ব্য়বস্থা না নেওয়া যায়, তাহলে এক সময়ে গিয়ে নার্ভগুলি প্রয়োজনীয় অক্সিজেন না পেয়ে মারা যায়। এবার বুঝতে পারছেন তো ঠিক ঠিক মাপের অন্তর্বাস না পরলে কতটা ক্ষতি হতে পারে।

৩. ভ্যাজাইনাল ইনফেকশনের আশঙ্কা বাড়ে:

৩. ভ্যাজাইনাল ইনফেকশনের আশঙ্কা বাড়ে:

খুব চাপা আন্ডারওয়্যার পরার অভ্যাস করলে এক সময়ে গিয়ে শরীরের বিশেষ কিছু অংশে মারাত্মক চুলকানি, সেই সঙ্গে ভ্যাজাইনায় বারং বার সংক্রমণের আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। প্রসঙ্গত, টাইট আন্ডার গার্মেন্টস পরলে পুরুষদের মতো মহিলাদেরও গোপন অঙ্গে রক্ত সরবরাহ একেবারে কমে যায়। ফলে যা হওয়ার তাই হয়।

৪. অম্বলের প্রকোপ বৃদ্ধি পায়:

৪. অম্বলের প্রকোপ বৃদ্ধি পায়:

একেবারে ঠিক শুনেছেন, টাইট অন্তরবাস পরলে স্টামাকের উপর খুব চাপ পরে। ফলে অ্যাসিড রিফ্লাক্স হতে শুরু করে। আর এমনটা দীর্ঘ সময় হতে থাকলে ক্রনিত অম্বলের সমস্যায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা ১০০ শতাংশ বৃদ্ধি পায়। সেই সঙ্গে বদ হজমের মতো রোগের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ার আশঙ্কা থাকে।

৫. বায়ু প্রবাহ ঠিক মতো হতে পারে না:

৫. বায়ু প্রবাহ ঠিক মতো হতে পারে না:

শরীরের গোপন অঙ্গে ঠিক মতো বায়ু প্রবাহ না হলে ঘাম শুকনোর সুযোগ পায় না। ফলে ব্যাকটেরিয়াল ইনফেকশনে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভবনা বৃদ্ধি পায়। প্রসঙ্গত, মহিলাদের ভ্যাজাইনা সংলগ্ন অংশে সংক্রমণ হওয়া কতটা ভয়ঙ্কর, তা নিশ্চয় আর আলাদ করে বলে দিতে হবে না।

৬. ইউরিনারি ট্রাক্ট ইনফেকশন:

৬. ইউরিনারি ট্রাক্ট ইনফেকশন:

খুব চাপা প্যান্টি পরলে গোপন অঙ্গে হওয়া ঘাম শুকিয়ে যাওয়ার সুযোগ পায় না। ফলে শরীরের এই অংশে ব্যাকটেরিয়াদের সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। আর এমনটা বেশি সময় ধরে হতে থাকলে ইউরিনারি ট্রাক্ট ইনফেকশনের মতো জটিল সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। তাই সাবধান!

৭. নান রকমের ত্বকের রোগের প্রকোপ বৃদ্ধি পায়:

৭. নান রকমের ত্বকের রোগের প্রকোপ বৃদ্ধি পায়:

চাপা আন্ডারওয়্যার পরলে সারাক্ষণ আন্ডার গার্মেন্টের কাপড়টা ত্বকে ঘষা খেতে থাকে। ফলে সংক্রমণ, অ্যালার্জি, চুলকানি সহ একাধিক ত্বকের রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়। আর যদি ঠিক সময়ে আন্ডাপ প্যান্ট বদলে ফেলা না যায়, তাহলে কিন্তু এই সব রোগের প্রকোপ আরও বৃদ্ধি পায়। তাই সুস্থ থাকতে আজই সঠিক মাপের আন্ডারওয়্যার কিনে আনুন, না হলে কিন্তু বিপদ!

Read more about: health
English summary
You are well aware about the benefit of wearing clean underwear. As these garments are worn on the intimate parts of your body, any infection to those areas can be more painful than other parts of body. Also any small infection can lead to disasters like vaginal cancer. So, always wear neat and clean underwear.
Please Wait while comments are loading...