ত্বক ভালো রাখতে আখের রসের গুণাগুণ

By: Nayan Munshi
Subscribe to Boldsky

রোজ যদি আখের রস খাওয়া যায় তাহলে শরীর তো চাঙ্গা হয়ই, সেই সঙ্গে ত্বকের সৌন্দর্যও বৃদ্ধি পায়। আপনারা জানলে খুশি হবেন যে ত্বকের নানা সমস্য়া কমাতে আখের রস দারুন কাজে আসে। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক আখের রসের কিছু গুণাগুণ সম্পর্কে।

আখে প্রচুর পরিমাণে আলফাহাইড্রক্সি অ্যাসিড থাকে, যা ত্বকের টেক্সার ভালো করার পাশাপাশি মুখ পরিষ্কার করতে সাহায্য় করে। এখানেই শেষ নয়, রোজ যদি আখের রস পান করা বা মুখে লাগানো যায় তাহলে ত্বক খুব নরম হয়।

যে কোনও ধরনের ত্বকেই আখের রস লাগানো যায়। তাই ত্বকের খেয়াল রাখতে আজই বাড়িতে বসেই বানিয়ে ফেলুন আখের রসের ফেস প্য়াক। এটি নানা রকমের উপকরণ দিয়ে বানানো সম্ভব। কীভাবে বানাতে হয় এই ফেস প্য়াক? চলুন জেনে নেওয়া যাক সে সম্পর্কে।

১. আখ এবং মধু:

ড্রাই স্কিনের সমস্য়া যাদের, তারা এই দুই উপাদান মিলিয়ে একটি ফেস প্য়াক বানিয়ে ফেলুন। তারপর সেটি সপ্তাহে একদিন করে মুখে লাগান। তাহলে পার্থক্য় বুঝতে পারবেন।

২. আখ ও পেঁপে:

রোদে পুড়ে গেছে আপনার ত্বক। চিন্তা নেই আগের মতো উজ্জ্বলতা পেতে আখের রসের সঙ্গে পরিমাণ মতো পেঁপে মিলিয়ে সেটি সারা মুখে লাগান। প্রসঙ্গত, এই ফেস প্য়াকটি মুখের অবাঞ্চিত চুলের সমস্য়াও কমায়।

৩. আখ ও কফি:

এই দুই উপাদানের সঙ্গে পরিমাণ মতো কমলা লেবুর রস মিশিয়ে বানিয়ে ফেলুন ফেস স্কার্ব। তার পর সেটি ধীর ধীরে মুখে লাগান। কমলা লেবুর মধ্য়ে থাকা ভিটামিন-সি ত্বককে সুন্দর করতে দারুন কাজে দেয়।

৪. এ ইচ এ ফেসিয়াল:

আখের রসের সঙ্গে লেবুর রস, নারকেলের দুধ, আপেলের রস এবং আঙুরের রস মিলিয়ে একটি প্য়াক বানিয়ে ফেলুন। তারপর সেটি মুখে লাগান। এই ফেস প্য়াকটি ত্বককে প্রাণবন্ত করার পাশাপাশি ত্বকের ক্ষত দূর করে।

৫. আখ ও মুলতানি মাটি:

তৈলাক্ত ত্বক যাদের, তারা এটি ব্য়বহার করতে পারেন। কারণ মুলতানি মাটি ত্বকের অতিরিক্ত তেল শুষে নেয়, আর আখ ত্বকের মধ্য়ে জলের মাত্রা ঠিক রাখে। এই ভাবে এই দুই উপাদান ত্বককে ধীরে ধীরে সুন্দর করে তোলে।

English summary
There are many health benefits of drinking sugarcane juice, and it is extremely tasty as well, isn't it? Apart from being a great drink, sugarcane juice has many beauty benefits as well and can be easily used for the skin. Here's how to use sugarcane juice on skin.
Please Wait while comments are loading...