ত্বকের সৌন্দর্যতা বাড়াতে নুন দারুন কাজে আসে

Subscribe to Boldsky

খুব অ্যালার্জিতে ভুগছিলাম। তার মধ্য়েই বন্ধুরা চেপে ধরল গোয়া বেরাতে যাবে বলে। না গিয়ে উপায় ছিল না, তাই সারা গায়ে অ্যালার্জি নিয়েই চেপে বসলাম মুম্বাইগামী ফ্লাইটে। সেখান থেকে ট্রেনে পানাজি। এদিকে মুম্বাই পৌঁছানোর পর থেকেই অ্যালার্জি আরও বারতে শুরু করল। গোয়ায় গিয়ে আমার সঙ্গে সঙ্গে বন্ধুদেরও ঘোরা মাথায় উঠল! কেন? আরে আমার অ্যালার্জি তো তখন চুরান্ত বদলা নিতে শুরু করেছে। সারা গা এত চুলকাচ্ছে যে কোনও কাজই করতে পারছি না। আবশেষে ডাক্তার দেখাতেই হল। তিনি একটি আজব উপদেশ দিলেন। বললেন, সমুদ্রে স্নান করতে। প্রথমটায় বিশ্বাসই হচ্ছিল না, যে ডাক্তারবাবু এমন কথা কেন বললেন। কিন্তু বিশ্বাস করুন বার তিনেক সমুদ্রে স্নান করার পর থেকেই দেখলাম অ্যালার্জি কমতে শুরু করে দিয়েছে। ভাবছেন তো, সমুদ্রে স্নান করে আমার রোগ কী করে সেরে গেল। আমারও মনে একই প্রশ্ন জেগেছিল। পরে জেনেছিলাম নুনে এমন কিছু উপাদান রয়েছে যা একাধিক ত্বকের রোগ সারাতে দারুন কাজে আসে না। সেই সঙ্গে ত্বককে সুন্দর করতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

প্রসঙ্গত, সামদ্রিক নুনে ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, সোডিয়াম এবং পটাশিয়াম থাকে প্রচুর মাত্রায়। এই সবকটি মিনারেলই ত্বকের আদ্রতা দূর করার পাশাপাশি স্কিনের প্রদাহ এমনকি ইরিটেশন কমাতেও দারুন কাজে আসে। তাই তো এই প্রবন্ধে ত্বককে সুন্দর করতে কীভাবে নুনকে কাজে লাগাতে যেতে পারে, সেই নিয়ে আলোচনা করা হল।

১. ত্বকের ফেটে যাওয়া অটকায়:

ত্বক ফেটে যাচ্ছে? কিছু করেই ফল পাচ্ছেন না। তাহলে এই ঘরোয়া উপায়টি কাজে লাগাতে পারেন। হাফ চামচ সামদ্রিক নুন নিয়ে তার সঙ্গে মধু মিশিয়ে নিন।তারপর সেই মিশ্রন সারা মুখে লাগিয়ে ফেলুন। ১০ মিনিট রেখে হালকা গরম জল দিয়ে মুখটা ধুয়ে ফেলুন। এমনটা করলে ত্বক তার প্রয়োজনীয় আদ্রতা ফিরে পাবে। ফলে ত্বক ফেটে যাওয়া, বারে বারে ব্রণ হওয়ার মতো সমস্যাগুলি কমবে।

২. শুষ্ক ত্বককে ভাল করে:

ত্বকের উপরিভাগে জমে থাকা মৃত কোষেদের সরিয়ে দিয়ে ত্বককে উজ্জ্বল করার পাশাপাশি স্কিনকে আদ্র রাখতে নুন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। ২ চামচ সামদ্রিক নুনের সঙ্গে দু চামচ ব্রাউন সুগার, এক চামচ নারকেল তেল এবং দু চামচ চিনি মিশিয়ে নিন। তারপর মিশ্রনটা ভাল করে মুখে লাগান। কিছুক্ষণ রেখে টান্ডা জল দিয়ে মুখটা ধুয়ে নিন।

৩. ত্বককে পরিষ্কার করতে কাজে লাগাতে পারেন:

নুন হল প্রাকৃতিক ক্লিনসার। তাই তো এটি দিয়ে মুখ পরিষ্কার করলে জমে থাকা ময়লা ধুয়ে যায়, ফলে ত্বক সুন্দর এবং নরম হতে শুরু করে। কীভাবে নুনকে ক্লিনসার হিসাবে ব্য়বহার করবেন? খুব সহজ! অল্প করে সামদ্রিক নুন নিয়ে তার সঙ্গে পছন্দের যে কোনও ফেসিয়াল অয়েল মেশান। এবার সেই তেলটা জলের সঙ্গে মিশিয়ে ভাল করে মুখে মাসাজ করুন। এই মিশ্রনটি ত্বকে ভেতর থেকে পরিষ্কার করে, ফলে ধীরে ধীরে ত্বক উজ্জ্বল এবং প্রাণবন্ত হতে শুরু করে।

৪. ফোলা চোখকে স্বাভাবিক করে:

পরিমাণ মতো সামদ্রিক নুন জসের সঙ্গে মেশান। তরপর তুলো নিয়ে সেই জলে চুবিয়ে চোখের উপর রাখুন। প্রসঙ্গত, তুলটা একটু বড় করে নেবেন। যাতে চোখের পাশাপাশি চোখের তলাটাও ঢেকে যায়। তুলটা কিছুক্ষণ চোখের উপর রেখে ঠান্ডা জল দিয়ে মুখটা ধুয়ে ফেলুন ভাল করে। দিনে দুবার এমনটা করলেই দেখবেন চোখের ফোলাভাব কমে যাবে।

৫. পায়ের পরিচর্যায় কাজে লাগাতে পারেন:

সেই আদি কাল থেকে পা-কে সুন্দর রাখতে নুনের ব্যবহার হয়ে আসছে। ১-২ চামচ নুন জলের সঙ্গে মিশিয়ে সেই জলে কিছুক্ষণ পা চুবিয়ে বসে থাকুন। এমনটা করলে দেখবেন পায়ের উপরি অংশে জমতে থাকা মৃত কোষগুলি ধুয়ে যাবে, সেই সঙ্গে পায়ের যন্ত্রণা এবং ফোলা ভাবও কমবে। তাহলে কী বুঝলেন! এই ঘরোয়া উপায়টি শুধু পায়ের সৌন্দর্য বাড়ায় না, সেই সঙ্গে পা সংক্রান্ত নানা রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও কমায়।

৬. ফাটা ঠোঁটের চিকিৎসায় কাজে লাগে:

অল্প করে সামদ্রিক নুন নিয়ে পরিমাণ মতো নারকেল তেলের সঙ্গে মিশিয়ে ঠোঁটে লাগান। কিছুক্ষণ রেখে ঠান্ডা জল দিয়ে ঠোঁটটা ধুয়ে ফেলুন। দিনে দুবার এই ঘরোয়া চিকিৎসাটি করলে ঠোঁটের ফাটা ভাব কমে গিয়ে ধীরে ধীরে ঠোঁটটা সুন্দর হতে শুরু করবে।

৭. মুখের গন্ধ দূর করে:

পরিমাণ মতো সামদ্রিক নুনের সঙ্গে খাবার সোডা মিলিয়ে ফেলুন। এই মিশ্রনটি মুখের গন্ধ দূর করতে দারুন কাজে দেয়। আসলে সামদ্রিক নুনে এমন কিছু উপাদান থাকে, যা মুখ গহ্বরে জমতে থাকা জার্মকে মেরে ফেলে। ফলে দুর্গন্ধ বেরনো বন্ধ হয়ে যায়।

৮. টোনার হিসাবে কাজে লাগাতে পারেন:

সামদ্রিক নুন টোনার হিসাবে দারুন কাজে আসে। এটি ত্বককে পরিষ্কার করার পাশাপাশি ত্বকের হারিয়ে যাওয়া আদ্রতা ফিরয়ে আনতে সাহায্য় করে। ফলে স্কিন সুন্দর হতে শুরু করে। অল্প করে সামদ্রিক নুন নিয়ে জলের সঙ্গে মিশিয়ে নিন। তারপর সেই জল মুখে স্প্রে করুন। তাহলেই দেখবেন ধীরে ধীরে ত্বকের স্বাস্থ্য ফিরতে শুরু করেছে।

English summary
Sea water is known to contain minerals and nutrients that are essential to our body. We can find similar minerals in our body as that found in sea water and hence sea salt can be used as a perfect ally to protect our skin and also supply these nutrients.
Please Wait while comments are loading...