তৈলাক্ত ত্বকের কীভাবে যত্ন নেবেন

Posted By: Super Admin
Subscribe to Boldsky

তৈলাক্ত গায়ের ত্বক মোটেই খারাপ নয়। কেবল মাত্র এর প্রয়োজন কিছু রক্ষণাবেক্ষণ ও যত্ন।প্রকৃত পক্ষে শুকনো ত্বকে বয়োবৃদ্ধির যে সব রেখা অতি দ্রুত পরিস্ফুট হয় তৈলাক্ত ত্বকে সে সব রেখা অনেক দেরীতেই দেখা দেয়। কাজেই যাদের ত্বক তৈলাক্ত তাদের হীনমন্যতায় ভোগার কোনো কারণতো নেই, উপরুন্ত তাদের একটা সুবিধা আছে।

আপনার একটা জিনিসই জানা দরকার যে তৈলাক্ত ত্বকের কীভাবে যত্ন নেবেন। এই ব্যাপারটাকে অবহেলা করা মানেই আপনি ব্রণ,ফুসকুড়ি, অবাঞ্ঝিত দাগ এবং আরো অনেক ত্বকের সমস্যাকে আপনার অল্প বয়সেই আহ্বান করার ঝুঁকি নিচ্ছেন।

তৈলাক্ত ত্বকচর্চার সহজ উপায়

তৈলাক্ত ত্বকচর্চার সহজ উপায়

মুখাবয়বে তেল ও ধূলোর অবস্থান এই সব ত্বকের সমস্যার সৃষ্টি করে।যেহেতু শরীর থেকে এক ধরণের চর্বিযুক্ত তৈলজ পদার্থের নিঃস্রাবণ হয়, সেই কারণেই ত্বকের বিভিন্ন সমস্যার প্রাদুর্ভাবকে রোধ করার জন্য আপনার অবশ্যই প্রয়োজন হল ত্বককে পরিষ্কার রাখার ব্যাপারে চিন্তাপ্রসূত পদ্ধতি অবলম্বন করা।

ত্বক টানটান করতে লেবুর রস

ত্বক টানটান করতে লেবুর রস

এর সঙ্গে আরো একটা ব্যাপারে আপনার সতর্ক হওয়া উচিত- সেটা হল প্রসাধন দ্রব্য বাছাই ব্যাপারটা। কারণ মনে রাখবেন সব প্রসাধন দ্রব্যই কিন্তু আপনার পক্ষে উপযুক্ত নয়। এমন কি এর মধ্যে কিছু আপনার পক্ষে ক্ষতিকর।

এখন তৈলাক্ত ত্বকের যত্নের কিছু গুরুত্নপূর্ণ ব্যাপার নিয়ে আলোচনা করা যেতে পারে।

টিস্যু পেপার নিন

টিস্যু পেপার নিন

যখনই আপনার মুখাবয়ব অতিরিক্ত তৈলাক্ত হয়ে উঠবে তখনই আপনার প্রয়োজন একটা টিস্যু পেপার দিয়ে এই অতিরিক্ত তেলকে শুষে নেওয়া। এর ফলে আপনার মুখের উজ্জ্বল ভাবটা কমে যাবে। একটা কথা মনে রাখবেন - যখন টিস্যু পেপার দিয়ে মুখের তেলতেলে ভাব দূর করছেন ঠিক এই সময়ে নাকটাকে ঢেকে রাখবেন যাতে নাক থেকে তৈলাক্ত পদার্থ মুখে এসে না পড়ে।

দিনে দুবার মুখাবয়ব ধুয়ে ফেলুন

দিনে দুবার মুখাবয়ব ধুয়ে ফেলুন

এখন কোটি টাকার প্রশ্ন হল-তৈলাক্ত ত্বককে নিয়ন্ত্রণে রাখবেন কী ভাবে? মুখ পরিষ্কার করার জন্য মোলায়েম ধরণের পদার্থ(Cleanser) করুন এবং কমপক্ষে দিনে দুবার মুখাবয়ব ধুয়ে ফেলুন। এর ফলে মুখের তৈলাক্তভাব নিয়ন্ত্রণে থাকবে। তবে অতিরিক্ত পরিষ্কার করবেন না যাতে ত্বকে শুকনো ভাব চলে আসে।

মাস্ক

মাস্ক

মুখের ওপরে ধূলো বা নোংরা এবং তেলকে শুষে নেবার জন্য প্রত্যেক সপ্তাহান্তে ক্লে মাস্ক ব্যবহার করুন। আবার সাবধান - অতিরিক্ত ব্যবহার ত্বকে শুকনো ভাব ডেকে আনবে।

ময়েশ্চারাইজার

ময়েশ্চারাইজার

এমন এক প্রসাধন ব্যবহার করুন যা তেল-মুক্ত। যদিও তৈলাক্ত ত্বকের জলীয় পদার্থের প্রয়োজন অনেক কম, তবু এর কিছুটা দরকার আছে।

প্রসাধনী

প্রসাধনী

একটা খুব গুরুত্বপূর্ণ কথা মনে রাখার বিশেষ প্রয়োজন। মেক-আপের ওপর কম নির্ভর করাই ভাল কারণ ত্বকের স্বাভাবিক চরিত্র হল যে অতিরিক্ত বহিরাগতের অনুপ্রবেশ তার মোটেই মন-পসন্দ নয়।

English summary
Oily skin is in fact not really bad. It just needs a bit of maintenance. In fact, oily skin doesn't age faster compared to dry skin. So, people with oily skin can stop hating themselves as they do have one advantage.
Please Wait while comments are loading...